You are currently viewing গুগলের র‍্যাঙ্ক করার জন্য ১১টি এসইও কৌশল – Msterblog

গুগলের র‍্যাঙ্ক করার জন্য ১১টি এসইও কৌশল – Msterblog

গুগলের র‍্যাঙ্ক করার জন্য এসইও কৌশল

ব্লগিং শুরু করা সহজ। তবে এই ব্লগে ভিজিটর আনতে অনেক সময়ের ব্যাপার। যে কেউ ব্লগ শুরু করে কিন্তু কন্টেন্ট মার্কেটিং থেকে বা সোশাল মিডিয়ায় থেকে ট্রাফিক আনতে থাকে, বিশেষ করে এগুলো এসইও না, হা কনটেন্ট মার্কেটিং ফলে আপনার ওয়েবসাইট ভিজিটর আসবে,সেটা আপনি মার্কেটিং করার ফলে ট্রাফিক আসতেছে  এসইও নিজেই কোন মার্কেটিং ছাড়া ভিজিটর আনতে সক্ষম।

আপনি যদি এসইও সম্পর্কে আইডিয়া না থাকে তাহলে আপনি সচারাচর নিচের এই তিনটি কাজ করতে চেষ্টা করবেন।

প্রথমত, একজন এসইও এক্সপার্ট নিজের ওয়েবসাইট কীভাবে এসইও করতে হয় তা বের করার চেষ্টা করবে। সে একই পুরানো এসইও টিপস এবং ট্রিকস খুঁজে পেতে গাইড এবং কনটেন্ট খুঁজে বেড়াবে, তাদের খুঁজে পাওয়া সর্বাধিক সাধারণ এসইও হ্যাকগুলির একটি ট্রায়াল এবং ত্রুটি করবে এবং যদি তারা যথেষ্ট ভাগ্যবান হয় তবে তারা বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মূল বিষয়গুলি বের করবে তারা তাদের দক্ষতাকে মজবুত করে ভালো মতো এসইও করবে।

দ্বিতীয়ত, আপনি অনভিজ্ঞ এসইও পার্সনকে এসইও করার জন্য নিয়োগ দিলেন এবং সে ব্যাক্তিকে বিশ্বাস করে আপনার ওয়েবসাইট এসইও করতে দিলেন। দুর্ভাগ্যবশত, বেশিরভাগ সময় অনভিজ্ঞ এসইও ব্যাক্তিকে এসইও করতে দেওয়া আপনার ওয়েবসাইট অবস্থা খারাপ করে দিবে। হয়তো আপনাকে ১ মাসের মধ্যে ভালো ফলাফল এর আশা দিবে “মাত্র এক মাসের মধ্যে 100% ফলাফল” এর মতো লেবেল দিয়ে তাদের নিজের পককেট ভরবে আপনার ওয়েবসাইট এর কোন ভালোফলাফল ও পাবেন না শুধু আপনার টাকা নষ্ট হবে আর কিছু না।

তৃতীয়ত, আপনি এমন একটি ওয়েবসাইট ডেভেলপমেন্ট কোম্পানি বা এসইও এজেন্সি খুঁজবেন যাদের সাহায্যে আপনার ওয়েবসাইট এর এসইও ভালো মতো করতে পারবেন।

যাইহোক, প্রথম উপায়টি খুব বেশি সময় নেয়। দ্বিতীয় উপায় কোন ফলাফল ছাড়াই আপনার অর্থ নষ্ট করবে। এবং, দুর্ভাগ্যবশত, সঠিক সময়ে তৃতীয় উপায় বের করার জন্য সবাই যথেষ্ট সচেতন নয়। এসইও করার জন্য।

আপনি কি জানেন যারা গুগল SERP পেজে আগে থেকে Rank করে আছে তাদের কে কি আপনার ওয়েবসাইট এত সহজে একমাসে মধ্যে বিট করতে পারবে কিংবা ২-৩ মাসের মধ্যে বিট করে SERP আসতে পারবে আসলে এটা অনেক কষ্টকর, অনেক ট্রিক্স ব্যবহার করে এই ওয়েবসাইট কে বিট করতে হবে আপনার।

এসইও রহস্য কি জানেন?

যারা SERP আগে থেকে আছে তারা এসইও হ্যাকের একটি গুচ্ছ বের করেছে যা মানুষ সাধারণত কথা বলে না আজকে আপনাদেরকে এমন এসইও হ্যাক নিয়ে কথা বলবো আপনি সার্চ ইঞ্জিন প্রথম পেজে স্থায়ী হতে পারবেন হোয়াইট হ্যাট এসইও এর মাধ্যমে এবং সার্চ ইঞ্জিন ফলাফলের শীর্ষে পৌঁছানোর জন্য এগুলি ব্যবহার করে।

আজ, আমরা এইগুলির মধ্যে সর্বাধিক কার্যকর ব্যক্তিদের সংগ্রহ করে এবং এখানে তাদের ব্যাখ্যা করে আপনাকে সহায়তা করব।

টাইটেলর মধ্যে ভাইরাল শব্দ ব্যবহার করা

আপনার টাইটেল ট্যাগ হল মানুষ আপনার ওয়েবপৃষ্ঠার প্রথমে দেখবে। তাই এটিতে সঠিক জিনিসটি রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ যাতে আপনি তাদেরকে মুগ্ধ করতে পারেন। কিছু শব্দ মানুষকে আপনার সাইটের জন্য বেশি আকৃষ্ট করে, যার ফলে সার্চ ইঞ্জিন ফলাফলে আপনার পৃষ্ঠার স্থান আরও মজবুত বেশি হয়।

আপনি নিজেই এটি লক্ষ্য করতে পারেন। যে কোনও কীওয়ার্ড নিন এটি গুগলে সার্চ করুন আপনি দেখতে পাবেন যে সমস্ত শীর্ষ ফলাফলে সর্বদা নির্দিষ্ট শব্দ থাকে। এর মধ্যে “শীর্ষ”, “সেরা”, “গাইড”, “সংবাদ”, “পর্যালোচনা” ইত্যাদি শব্দ অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

লং টেইল কীওয়ার্ড ব্যবহার করা

আপনি হয়তো মনে করতে পারেন যে লং টেইল কীওয়ার্ড খুঁজে বের করার একমাত্র উপায় হল কীওয়ার্ড জেনারেটর এবং কীওয়ার্ড রিসার্চ টুলস যেমন গুগল কিওয়ার্ড প্ল্যানার ব্যবহার করা। যাইহোক, সার্চ ইঞ্জিন থেকে সরাসরি লং-লেইল কীওয়ার্ড খুঁজে পেতে অন্যান্য উপায় আছে।

প্রথমটি হল: সার্চ বারে আপনার প্রাথমিক কীওয়ার্ড বা সার্চ টার্ম টাইপ করা। আপনি সার্চের পূর্বাভাসের একটি গুচ্ছ লক্ষ্য করবেন যা প্রদর্শিত হবে।আপনি গুগল থেকে ট্রাফিক পেতে আপনার বিষয়বস্তুতে ভালো মানের কীওয়ার্ড এবং LSI কীওয়াড ব্যবহার করতে পারেন।

লম্বা-লেজ বা লং টেইল কীওয়ার্ড?কীওয়ার্ডগুলি দেখার জন্য আরেকটি ভাল জায়গা হলো গুগলের সার্চ বারে আপনি যে কোন কীওয়াড লিখে একটা “স্পেস” দিন দেখবেন কতগুলো কীওয়ার্ড দেখাচ্ছে রিলেভ্যান্ট অথবা আপনি SERPs এর নীচে পাবেন। সার্চ ইঞ্জিন আপনাকে এমন জিনিস দেখায় যা মানুষ এগুলো বরাবর খুঁজছে।

গুগল বিজ্ঞাপন প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করুন

এটি সবার পক্ষে সম্ভব হয় না গুগল বিজ্ঞাপন। গুগল বিজ্ঞাপন প্ল্যাটফর্ম মূলত এসইআরপিগুলিতে দৃশ্যমানতার বিনিময়ে প্রাসঙ্গিক কীওয়ার্ডগুলির জন্য একটি জায়গা তৈরি করে দেয় ভিজিটর পাওয়ার জন্য। কিন্তু সুসংবাদ হল, আপনাকে সেই লক্ষ্যযুক্ত কীওয়ার্ডগুলি খুঁজে বের করতে হবে এবং লাগাতার অগত্যা অর্থ ব্যয় করতে হবেনা।

আপনি যদি অর্গানিক ভাবে Rank করতে পারেন তাহলে আপনার থেকে সেই কীওয়ার্ড এর জন্য কোন টাকা খরচ না করে ভিজিটর পেয়ে যাবেন।

আপনার নিশ কীওয়ার্ডগুলি বিশেষভাবে ভালভাবে কাজ করছে তা খুঁজে বের করার একটি কৌশল রয়েছে।

কেবল গুগলে আপনার প্রাথমিক কীওয়ার্ডটি অনুসন্ধান করুন এবং সেই কীওয়াড এর রেজাল্ট পেজের ওয়েবসাইট এর পোস্ট গুলো দেখুন। আপনি দেখতে পাবেন যে কিছু শব্দ এবং বাক্যাংশ বিজ্ঞাপনের স্নিপেটে একাধিকবার পুনরাবৃত্তি করা হবে। এই অগ্রাধিকার কীওয়ার্ড হবে। এখন, আপনি কেবল সেগুলি আপনার নিজের কনটেন্ট যুক্ত করতে পারেন এবং এটি আগের চেয়ে আরও ভাল সম্পাদন করতে পারেন।

লিঙ্ক রাউন্ডআপ এবং রিসোর্স পেজের মাধ্যমে ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করুন

আপনার সাইট এবং পেজের কর্তৃত্ব এবং নির্ভরযোগ্যতা বিচার করতে গুগল যে শীর্ষ নির্দেশকগুলি ব্যবহার করে তার মধ্যে ব্যাকলিঙ্কগুলি অন্যতম। আপনার যত বেশি ব্যাকলিংক থাকবে, আপনার সাইট তত ভালো করবে। যাইহোক, ব্যাকলিংক বানানো অত্যন্ত কঠিন হতে পারে, বিশেষত তাদের জন্য যারা শুরু করছেন।

ব্যাকলিঙ্ক অর্জনের সর্বোত্তম উপায় হল লিঙ্ক রাউন্ডআপ এবং রিসোর্স পেজের মাধ্যমে। লিঙ্ক রাউন্ডআপগুলি কনের মতো

ইন্টান্যান লিঙ্ক অর্জনের সর্বোত্তম উপায় হল লিঙ্ক রাউন্ডআপ এবং রিসোর্স পেজের মাধ্যমে। লিঙ্ক রাউন্ডআপগুলি বিষয়বস্তু ডিরেক্টরিগুলির মতো যা একটি নির্দিষ্ট বিষয়ের সাথে সম্পর্কিত তবে বর্তমান সময়ে ডিরেক্টরি এসইও তে কাজ করে না।

অন্যদিকে, রিসোর্স পেজগুলো রেকর্ড বইয়ের মতো যা এটিকে সর্বকালের সেরা কনটেন্ট নাম দেয়। আপনি যদি এই পৃষ্ঠাগুলি চালাচ্ছেন এমন ব্যক্তিকে ধরে রাখতে পারেন, তবে তাদের তালিকাতে আপনার পৃষ্ঠা অন্তর্ভুক্ত করার জন্য তাদের বোঝানো খুব কঠিন হওয়া উচিত নয়।

অন অন ডিমান্ড কনটেন্ট তৈরি করুন

আমরা যে পরিবর্তন দুনিয়ায় আছি, কেউ যদি আপনার বিষয়বস্তুর অংশটি জেনারেল, সেকেলে এবং শুধুমাত্র বিষয়টির পৃষ্ঠকে স্কিম করে তবে সেটার প্রতি দ্বিতীয় দৃষ্টিপাত করবে না। ভিজিটররা একটি কনটেন্ট থেকে অন্য কনটেন্ট যেতে চায়।

তার মানে আপনাকে তাদের বিষয়ে গভীর এবং অনডিমান্ড কনটেন্ট সরবরাহ করতে চাই। এটি বিশেষ করে সর্বশেষ পরিবর্তনের পরিপ্রেক্ষিতে আপনি যে বিষয়ের সাথে কাজ করছেন তার A থেকে Z কে কভার করা উচিত। এর মানে হল যে আপনাকে আপডেটগুলি ধরে রাখতে হবে এবং নির্ভরযোগ্য, প্রাসঙ্গিক বিষয়বস্তু এবং একটি ভাল ব্যবহারকারীর অভিজ্ঞতা প্রদান করতে হবে।

লো কোয়ালিটি কনটেন্ট কে উন্নত করুন

সার্চ ইঞ্জিন ফলাফলে আপনার পৃষ্ঠার অর্গানিক র‍্যাঙ্ক প্রভাবিত করে এমন একটি সম্ভাব্য মেট্রিক হল আপনার বাউন্স রেট এবং কিছুটা হলেও আপনার গড় সেশনের সময়কাল। লোকোয়ালিটি কনটেন্ট এর কারণে যদি লোকেরা খুব শীঘ্রই আপনার পৃষ্ঠাটি ছেড়ে চলে যায় তবে এটি আপনার SERP Ranking প্রভাবিত করবে।

অতএব, আপনার প্রধান কাজগুলির মধ্যে একটি হওয়া উচিত যে আপনার কোন ওয়েব পেজ লো কোয়ালিটি কনটেন্ট না থাকা। আপনি পেজটির জন্য কী কাজ করছে না তা খুঁজে পেতে এবং অর্গানিক ট্রাফিকের জন্য এটি অপ্টিমাইজ করার জন্য গুগল অ্যানালিটিক্স এবং গুগল সার্চ কনসোলের মতো মৌলিক কিছু ব্যবহার করতে পারেন। আপনার ওয়েবসাইট এর অর্গানিক ভাবে ভিজিটর আসতেছে কিনা সেটা দেখার জন্য গুগল সার্চ কনসোল দেখুন সেখানে সব রিপোর্ট পেয়ে যাবেন।পরিবর্তনগুলি সত্যিই কাজ করেছে কিনা তা দেখতে নিয়মিতভাবে পরীক্ষা করে দেখুন।

এসইও আপডেটের জন্য চোখ রাখুন Msterblog নিয়মতি কোর এবং মেজর সব এসইও আপডেট সাথে সাথে পেয়ে যাবেন যদি এসইওতে কোন মেজর আপডেট এসে থাকে তাহলে। গুগল প্রতি বছর শত শত এসইও আপডেট প্রকাশ করে, যার মধ্যে তিনটি থেকে পাঁচটি মূল আপডেট রয়েছে। তাদের সবার হিসাব রাখা অসম্ভব হবে। যাইহোক, আপনাকে এখনও নিশ্চিত করতে হবে যে কমপক্ষে মূল আপডেটগুলির পাশাপাশি সার্চ ইঞ্জিনে দৃশ্যমান পরিবর্তনগুলির উপর নজর রাখতে হবে।

এইভাবে, আপনি জানতে পারবেন কিভাবে এবং কখন আপনার কনটেন্ট গুগল কোন প্যারামিটার ব্যবহার করে। আপনি ফিউচার স্নিপেট, রিচ স্নিপেট, নলেজ গ্রাফ, ইমেজ এবং ভিডিও প্যানেল, লোকাল সার্চ 3-প্যাক, সংবাদ ট্যাব ইত্যাদির মতো বৈশিষ্ট্যগুলির জন্য আপনার কনটেন্টকে অপ্টিমাইজ করতে পারেন।

প্রতিটি সার্চের উৎসের জন্য অপ্টিমাইজ করুন। গুগল হল সবচেয়ে জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন এবং এর জন্য অপ্টিমাইজ করা বেশিরভাগ কাজ করে। যাইহোক, এমন অন্যান্য ক্ষেত্র রয়েছে যার জন্য আপনার পেজের কনটেন্ট কর্মক্ষমতা উন্নত করতে আপনার সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন করা উচিত। তার মানে Bing এবং Yahoo এর মত সার্চ ইঞ্জিন এবং YouTube, Facebook, Instagram, Pinterest, Twitter ইত্যাদি অ্যাপ।

এর কারণ হল লোকেরা প্রায়শই তাদের অনুসন্ধানের প্রশ্নটি এক স্থান থেকে অন্য স্থানে স্থানান্তর করে এবং সেই সুযোগটি দখল করে আপনার সাইটকে আরও ভালভাবে সম্পাদন করতে সহায়তা করবে। আপনি যদি এই সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং প্ল্যাটফর্মে কন্টেন্ট মার্কেটিং করেন, সে অনুযায়ী সেগুলি অপ্টিমাইজ করা আরও গুরুত্বপূর্ণ।

 

আপনার লক্ষ্য দর্শকদের সেই বিষয়গুলির বিষয়বস্তু সরবরাহ করে, আপনি প্রত্যাবর্তন ট্র্যাফিক নিশ্চিত করতে সক্ষম হবেন।

অন্য উপায় আপনার কনটেন্টকে দীর্ঘ সময়ের জন্য প্রাসঙ্গিক এবং সক্রিয় রাখতে সহায়তা করে। কমেন্ট ওয়েলে সক্রিয় থাকার মাধ্যমে, আপনি আপনার বিষয়বস্তুকে সূক্ষ্ম, অন্তর্মুখী উপায়ে বৃহত্তর দর্শকদের কাছে তুলে ধরতে সক্ষম হবেন।

ফ্রি এসইও টুলস লিভারেজ করুন
এসইও খরচ করতে হবে না। আসলে, কিছু ক্ষেত্রে, এটির কোন খরচ নেই। ইন্টারনেটে প্রচুর পরিমাণে বিনামূল্যে এসইও টুলস রয়েছে যা আসলেই খুব ভাল মানের।

এসইও টুলস

টুলগুলি একটি বিনামূল্যে সংস্করণও রয়েছে। সত্য, এগুলি প্রদত্ত টুল এবং সংস্করণগুলির উন্নত বৈশিষ্ট্যগুলি অন্তর্ভুক্ত করে না। এমনকি যদি আপনি সামান্য অতিরিক্ত কাজ করার জন্য প্রস্তুত থাকেন তবে বিনামূল্যে টুলসগুলো যথেষ্ট হতে পারে।

আপনি বিভিন্ন ফ্রি টুলস একত্রিত করতে পারেন এবং পেইড টুলস আপনাকে যে ফলাফল দেয় সেই একই ফলাফল পেতে নিজে কিছু লেগওয়ার্ক করতে পারেন।

মাল্টিমিডিয়া ব্যবহার করুন

বেশ কয়েকটি গবেষণা, সমীক্ষা এবং পরীক্ষা প্রমাণ করেছে যে মাল্টিমিডিয়ার ওয়েব পেজের কার্যকারিতার উপর একটি নির্দিষ্ট বর্ধিত প্রভাব রয়েছে। মাল্টিমিডিয়াতে বিভিন্ন ফর্ম এবং ফরম্যাট যেমন ভিডিও, ইমেজ, অডিও, ইনফোগ্রাফিক্স, চার্ট, গেমস, ইন্টারেক্টিভ উপাদান ইত্যাদি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

মাল্টিমিডিয়া কেন ব্যবহার করবেন?
প্রথমটি হল যে, মানুষ যখন পড়ার পরিবর্তে তথ্য শোনে বা দেখে তখন সেগুলি বেশি আগ্রহ করে। এই কারণেই ভিজ্যুয়াল লার্নিং আজকাল এত বেশি আকর্ষণ হচ্ছে দিন বা দিন।

দ্বিতীয়ত, মাল্টিমিডিয়ার একটি ছোট জায়গার মধ্যে অনেক তথ্য সংক্ষিপ্ত এবং স্পষ্টভাবে দেখানোর ক্ষমতা আছে যা একটা কনটেন্ট এর পক্ষে সম্ভব না।

স্মার্টফোনের জন্য আপনার পেজটি অপ্টিমাইজ করুন।
আজ, ডেস্কটপ বা ল্যাপটপ ব্যবহারের চেয়ে বেশি মানুষ তাদের স্মার্টফোনগুলি দ্বারা গুগলে সার্চ বেশি করে থাকে। একটি সার্চ ইঞ্জিন ঠিক একইভাবে স্মার্টফোনে চলে না যেমনটি কম্পিউটারে চলে। স্মার্টফোনে ছোট পর্দার পাশাপাশি কম শক্তিশালী হার্ডওয়্যার রয়েছে।

অতএব, ব্যবহারকারী এবং স্মার্টফোন উভয়ই একই পেজে কম্পিউটারের চেয়ে ভিন্নভাবে প্রতিক্রিয়া জানায়। মোবাইল অনুসন্ধানের জন্য আপনার পেজগুলিকে অপ্টিমাইজ করা আপনার সাইটকে আরও ভাল করার জন্য নিশ্চিত করুন। আপনার পেজগুলি কমপক্ষে প্রতিক্রিয়াশীল হওয়া উচিত এবং ফোনে দ্রুত খোলার জন্য ভালো মানের ওয়েব হোস্টিং ব্যবহার করা উচিত।

উন্নত পারফরম্যান্সের জন্য অনেকেই ওয়েবসাইটের আলাদা মোবাইল ভার্সন তৈরি করে যেমনঃ এএমপি বা অ্যাক্সিলারেটেড মোবাইল পেজগুলি আসলে সুপারিশ করা হয় এবং স্মার্টফোনে তাড়াতাড়ি ওপেন হয়।

ব্রোকেন (Broken) লিংক রিমুভ করা?

আমরা ইতিমধ্যেই কথা বলেছি যে ওয়েব পেজগুলি SERPs- এ উচ্চ স্থান পাওয়ার জন্য ব্যাকলিংক কতটা গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু যদি আপনি ব্যাকলিংক অর্জন করছেন এবং একই সাথে সেগুলি হারাচ্ছেন, তাহলে এর কোন মানে হয় না। ব্রোকেন (Broken) লিঙ্কগুলি রিমুভ করার সহজ এসইও কৌশল ব্যবহার করে এটি প্রতিরোধ করা যেতে পারে।

ব্রোকেন লিঙ্কগুলি ঘটে যখন কেউ আপনার পৃষ্ঠায় বা সাইটের পুরানো লিঙ্কটি তাদের কনটেন্টে ব্যবহার করে। আপনি আপনার কনটেন্ট বা আপনার পেজ বা সাইটের URL আপডেট করা সহ বিভিন্ন কারণে এটি হতে পারে।

এর মোকাবেলা করার জন্য, আপনার ব্যাকলিংকগুলি পরীক্ষা করা উচিত এবং যদি আপনি ব্রোকেন (Broken) খুঁজে পান তবে তার জন্য আপনাকে যে ওয়েবসাইট এই লিঙ্কগুলি আছে সে ওয়েবসাইট এর লেখকের সাথে যোগাযোগ করুন এবং তাদের সেই অনুযায়ী তথ্য আপডেট করতে বলুন।

SEO- এর জন্য আপনার ওয়েবসাইটের ফোটার সেকশন ব্যবহার করুন

একটা সময় ছিল যখন মানুষ সার্চ ইঞ্জিন ফলাফলে উচ্চতর র‍্যাঙ্ক করার জন্য তাদের ফোটারে ওয়েবসাইটে লিঙ্ক যুক্ত করতো টাকার বিনিময়ে এটি একটি স্ক্যামিং এটি থেকে বিরত থাকুন।প্রকৃতপক্ষে, গুগল আপনাকে আপনার পেজে এই পদ্ধতিতে কীওয়ার্ড স্ক্রামিং থেকে নিরুৎসাহিত করে কারণ এটি আপনার সার্চ ইঞ্জিনের র‍্যাঙ্কিং উন্নত করার পরিবর্তে কমিয়ে দিতে পারে।

কিন্তু এর মানে এই নয় যে আপনার এসইওর জন্য আপনার ফোটার ব্যবহার করা উচিত নয়। এখানে মূল বিষয় হল ভারসাম্য। অপ্রয়োজনীয়ভাবে আপনার ফোটারে অজতা কীওয়ার্ড দিয়ে স্টাফ করবেন না। বরং, সাধারণভাবে অনুরোধ করা সার্চ টার্ম ব্যবহার করে তাদের অপ্টিমাইজ করুন এবং এটি SERPs- এ আপনাকে র‍্যাঙ্কিং করতে সাহায্য করবে।

আপনার বিষয়বস্তুতে প্রশ্ন যুক্ত করুন
পূর্বাভাসের বিপরীতে প্রশ্ন সার্চগুলি এক দশক আগের তুলনায় আরও জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। বেশিরভাগ প্রশ্নের সার্চ ভয়েস অনুসন্ধান এবং স্থানীয় সার্চ এর জন্য দায়ী।

শুধু তাই নয় কিন্তু Quora, Reddit এর মতো ফোরাম সাইটের জিজ্ঞাসা করা প্রশ্নগুলির উওর গুগল সার্চে ফলাফল হিসাবে SERP- এ দেখায়। সার্চ করা ব্যক্তিদের কাছে আসে যখন প্রশ্নগুলি কতটা গুরুত্বপূর্ণ তা দেখায়।

আপনার বিষয়বস্তুতে এই প্রশ্নগুলি অন্তর্ভুক্ত করা আপনাকে উচ্চতর র‍্যাঙ্কিং করতে সাহায্য করবে যখন লোকেরা সেটা সার্চ করবে।

শেষ কিছু কথা।
এসইও হলো টেকনিক ইন্টারনেট প্রতিনিয়ত পরিবর্তিত হচ্ছে এবং মানুষের অনলাইন আচরণও তাই। এসইও সঠিকভাবে করার অর্থ এই পরিবর্তনগুলির থেকে ক্রমাগত এগিয়ে থাকা এবং তাদের সাথে আপনার কনটেন্ট র‍্যাঙ্কিং ঠিকে থাকা। এসইও এর অনেক স্ট্যান্ডার্ড অনুশীলন আছে যা আপনি আপনার কনটেন্ট এর জন্য অনুসরণ করবেন, ঠিক অন্য সবার মত।

কিন্তু উপরের হ্যাকগুলি হল সেরা রাখা কিছু গোপন রহস্য যা থেকে আপনি মানসম্মত কনটেন্ট তৈরি করতে এবং আপনার সাইটের কর্মক্ষমতা উন্নত করতে বিশেষভাবে উপকৃত হবেন, বিশেষ করে যদি আপনি আপনার এসইও দিয়ে একাকী যাওয়ার পরিকল্পনা করছেন।

মনে রাখবেন এসইও হলো এমন কৌশল যার কোন প্রতিস্থাপন নেই-উচ্চমানের, এভার গ্রীন কনটেন্ট তৈরি করতে চেষ্টা করুন।গুগল বিশ্বাস করে কনটেন্টই হলো রাজা। কোন কিছুই মানসম্মত বিষয়বস্তু প্রতিস্থাপন করতে পারে না। আপনি যতই ভালো SEO করেন না কেন, বিষয়বস্তু খারাপ হলে মানুষ আপনার সাইটে ভিজিট করবে না এবং ব্যর্থতা অনিবার্য।

ব্লগিং শুরু করার গাইড

২০২১ সালে নতুনদের জন্য ব্লগিং শুরু করার গাইড – MsterBlog     

ফেসবুক থেকে আয় | ৭টি উপায়ে ফেইসবুক থেকে টাকা ইনকাম- Msterblog 

 

Leave a Reply