You are currently viewing ২১টি বিষয়বস্তু যা আপনার ব্লগ লেখার আগে জানতে হবে – Msterblog

২১টি বিষয়বস্তু যা আপনার ব্লগ লেখার আগে জানতে হবে – Msterblog

২১টি বিষয়বস্তু যা আপনার ব্লগ লেখার আগে জানতে হবে

ব্লগ লেখার আগে যা যা জানতে হবে
আপনি আপনার ব্লগ পোস্টটি প্রকাশ করার আগে, এই পয়েন্ট গুলো মিস করতেছেন না তো। আপনি আপনার বিষয়বস্তু পাঠকদের, সার্চ ক্রলার এবং আপনার মার্কেটিং লক্ষ্যের জন্য সম্পূর্ণরূপে অপ্টিমাইজ করতে পারেন।

ব্লগ পোস্ট লেখার জন্য চেকলিস্ট

1. একটি ভালো টাইটেল তৈরি করুন। পোস্টের শিরোনাম কী হবে তার জন্য অন্তত একটি প্রাথমিক ধারণা লিখুন। আপনি লেখা শুরু করার আগে শিরোনাম জানা আপনাকে বিষয়টিতে লেগে থাকতে এবং শিরোনামে আপনি যা প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তা সরবরাহ করতে সহায়তা করে।আপনার টাইটেল বা শিরোনাম যতই ভালো হবে আপনার ব্লগে ততই ক্লিক আসবে, আপনার ভিজিটরের কাছে এটি সহজে গ্রহণ যোগ্য পাবে।

2. আপনার অডিয়েন্স কারা তাদেরকে টার্গেট করে ব্লগ পোস্ট লেখুন। আপনি কার জন্য ব্লগ পোস্ট লিখছেন তা ঠিক করুন। যখন আপনি আপনার বিষয়বস্তুর সঠিক অডিয়েন্স জানেন, আপনার লেখার সাথে সরাসরি তাদের মনের মিল আর্টিকেল লেখতে পারবেন। আপনি যদি আপনার অডিয়েন্সদের কে নাই-বা জানেন তাহলে ভালো মতো কন্টেন্ট তৈরি করতে পারবেন না।

3. একটি প্রাথমিক কীওয়ার্ড চয়েস করুন। পোস্টের জন্য ব্যবহার করার জন্য সেরা কীওয়ার্ড সনাক্ত করতে গুগল সাজেশন টুলস ব্যহার করতে পারেন। আরও কীওয়ার্ড আইডিয়া পেতে গুগল ইমেজ থেকে নিতে পারেন রিলেটেড কীওয়ার্ড। কীওয়ার্ডটি সঠিকভাবে আপনার আর্টিকেলে উপস্থাপন করা উচিত এবং আপনার পোস্টের জন্য একটি শীর্ষ কীওয়ার্ড হওয়া উচিত। একটি তুলনামূলকভাবে জনপ্রিয় কীওয়াড ব্যবহার করলে এই কীওয়াডটি গুগলে rank করলে ভালো ভিজিটর পাওয়া যাবে। আর্টিকেল লেখার আগে আপনার কীওয়াড চয়েস করা জরুরি। একমাত্র কীওয়াড এর কম্বিনেশন আপনার পোস্ট গুগলে হায়ার Rank করতে সহায়তা করবে। আপনার আর্টিকেলের মেইন কীওয়াডটি আপনার ব্লগ টাইটেল একবার ব্যবহার করুন।

4. কয়েকটি সেকেন্ডারি কীওয়ার্ড ব্যবহার করুন। আপনার আর্টিকেলে তিনটি থেকে চারটি LSI কীওয়ার্ড চয়ন করুন যা পোস্টের মেইন টার্গেট কীওয়ার্ডের সাথে সম্পর্কিত। মনে করুন আপনি আর্টিকেল লেখতেছেন “নিজেকে পরিবর্তন করার উপায় ” এই কীওয়ার্ড সম্পর্কে রিলেটেড কীওয়ার্ড গুগল সাজেশন থেকে নিতে পারেন।

5. আপনার অডিয়েন্স এর উদ্দেশ্য জানুন। সমস্ত ডিজিটাল বিষয়বস্তু আপনার মার্কেটিং পরিকল্পনা মাথায় রেখে তৈরি করা উচিত। সুতরাং আপনার লেখার চেকলিস্টের প্রথম জিনিসগুলির মধ্যে একটি হওয়া উচিত আপনার ব্লগ মার্কেটিং সামগ্রীর জন্য শীর্ষ লক্ষ্য চিহ্নিত করা (যেমন ব্র্যান্ড সচেতনতা তৈরি করা, ইমেইল মার্কিটিং করা , এসইও বৃদ্ধি করা ইত্যাদি)। এর মাধ্যমে আপনি আপনার ভিজিটরকে আটকিয়ে রাখতে পারবেন আপনার ওয়েবসাইট।

6. আর্টিকেল লেখার সময় 500+ শব্দ লিখুন। বিষয়টিকে সম্পূর্ণরূপে কভার করার জন্য আপনার যতটা প্রয়োজন লিখুন এবং আপনার আর্টিকেলটি সবচেয়ে ভালো এবং বেশি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য আছে এটা গুগলকে দেখানোর জন্য ২০০০+ শব্দের আর্টিকেল হলে হবে। মনে রাখবেন আপনি যে আর্টিকেল লেখবেন এটা কিন্তু ২য় বার আর লেখবেন না তাই যে আর্টিকেল টা লেখবেন সম্পন্ন তথ্য দিয়ে লেখুন। আপনার ভিজিটর কে ভালো মানের কনটেন্ট উপহার দিন দেখবেন আপনার ভিজিটর আপনার ওয়েবসাইট বেশিক্ষণ থাকবে এটা আপনার ওয়েবসাইট এর জন্য একটা লাভজনক একটা দিক।
ব্লগ লেখার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হল এমন উদাহরণ ব্যবহার করা যা আপনার ভিজিটরে আপনি যে বার্তাটি শেয়ার করার চেষ্টা করছেন তা গভীরভাবে বুঝতে পারে।

7.এমন কোন শব্দ ব্যবহার করবেন না যা আপনার ভিজিটর বুঝতে কষ্ট হয়। সব সময় চেষ্টা করুন হাই-কোয়েলিটি কন্টেন্ট দেওয়ার। অতিরিক্ত জটিল বাক্য কাঠামো বা পরিভাষা ব্যবহার করবেন না যা আপনার ভিজিটর বা পাঠককে ২য় বার আপনার ব্লগে না আসে।

8. যদি সম্ভব হয় আপনার কনটেন্ট সাব-হেডিং একটি করে LSI কীওয়ার্ড ব্যবহার করা। আপনার ব্লগ পোস্টে যতই কীওয়াড ব্যবহার করবেন বিভিন্ন কীওয়ার্ড এর কারনে আপনার ব্লগ পোস্টে গুগলে Rank করতে পারে তবে আপনার পোস্ট সঙ্গে যায় না এমন কোন কীওয়ার্ড ব্যবহার করা উচিত না।

9. বড় কোন Paragraph ব্যবহার করবেন না, যদি বড় Paragraph হয়ে থাকে তাহলে ভেঙে ফেলুন। আপনার কনটেন্ট ছোট ছোট আকারে হওয়া উচিত যাতে আপনার লেখা আপনার ভিজিটর পড়তে ভালো লাগে।বড় বড় Paragraph গুগলে rank করতে সমস্যা করে অনেক সময়। গুরুত্বপূর্ণ তথ্যকে হাইলাইট করুন। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়বস্তু লেখার টিপসগুলির মধ্যে একটি হল গুগল ফিউচার স্নিপ এর মধ্যে চলে আসে। গুরুত্বপূর্ণ তথ্যকে বোল্ড, ইটালাইজ বা অন্যভাবে হাইলাইট করুন।

10. আপনার ব্লগে কোন বিষয়বস্তু কপি করবেন না তবে ধারণা নিতে পারেন। আপনার তৈরি করা কনটেন্ট সর্বদা আসল হওয়া উচিত এবং অন্য ওয়েবসাইট থেকে কখনও কপি করা উচিত নয়। অন্যান্য সাইট থেকে কন্টেন্ট কপি করার কারনে গুগল আপনার ওয়েবসাইট প্যারালাইস করতে পারে যাতে আপনি কখনে Rank করতে না পারেন।

11. সঠিক উৎস প্রদান করুন যদি কোন ওয়েবসাইট থেকে ছবি ব্যবহার করে থাকেন তাহলে ছবির Credit দিতে ভুলবেন না সবচেয়ে ভালো হয় যেগুলো ফ্রি স্টক ফটো সাইট আছে সেখান থেকে ছবি ব্যবহার করা। আপনি যদি আপনার ব্লগ পোস্টে অন্যান্য সাইট থেকে উদ্ধৃতি বা তথ্য ব্যবহার করেন, তাহলে উৎসের সাথে তালিকা এবং লিঙ্ক করে সঠিক উদ্ধৃতি প্রদান করুন যাতে গুগল আপনার ওয়েবসাইট কে প্যারালাইস না করে। সাব-হেডিং ব্যবহার করুন আপনার কন্টেন্ট বিভক্ত করতে আপনার পোস্ট জুড়ে সাবহেডিং ব্যবহার করে আপনার পোস্ট আলাদা আলাদা paragraph সংযুক্ত হতে পারে।

আরও পড়তে পারেনঃ ৪ টি বেষ্ট ওয়ার্ডপ্রেস লেখক বক্স প্লাগিন ২০২১

12. যদি পারেন আপনার ব্লগে রিলেটেড ছবি, ভিডিও, এম্বেডেড সামাজিক পোস্ট ইত্যাদি যোগ করা উচিত, যা পোস্টটিকে আরো আকর্ষণীয় করে তোলতে পারে। আপনার ব্লগেযে ছবি ব্যবহার করবেন নিশ্চিত করুন যে ছবিগুলি সঠিক আকারের বেশি ভারি না হয় । যে ছবিগুলি খুব বড় তা সাইট লোডের গতি কমিয়ে দেবে, তাই বড় ফাইলের মাপের ছবি ব্যবহার করবেন না। ইমেজ অল্ট ট্যাগে মেইন কীওয়ার্ড যুক্ত করুন। ব্লগ এসইও উন্নত করতে ইমেজ অল্ট ট্যাগে পেজের টার্গেট কিওয়ার্ড ব্যবহার করুন।

13. ইমেজ ফাইলের নাম এবং শিরোনামে প্রাথমিক কীওয়ার্ড ব্যবহার করুন। ছবি যুক্ত করার সময়, মূল ফাইলের নাম এবং আপনার পোস্টে -এর টাইটেল মেইন কীওয়ার্ড ব্যবহার করুন। ছবির কপিরাইট লঙ্ঘন এড়িয়ে চলুন।

14. মেটা ট্যাগে মেইন কীওয়ার্ড ব্যবহার করুন। এছাড়াও, একটি মূল মেটা বর্ণনায় মেইন কীওয়ার্ড অন্তর্ভুক্ত করুন যা ১৫০ অক্ষরের বেশি নয়।

15. আপনার কনটেন্ট প্রথম Paragraph মেইন কীওয়ার্ড ব্যবহার করুন। আরেকটি এসইও টিপ হল সার্চ ক্রলারদের সিগন্যাল পাঠানোর জন্য আপনার কনটেন্ট প্রথম Paragraph মেইন কীওয়ার্ড যখন থাকবে সার্চ ইঞ্জিন যখন আপনার ওয়েবসাইট ক্রল করবে তখন বুঝে যাবে আপনার কনটেন্ট কোন টপিক বা কীওয়ার্ড দিয়ে Rank করতে হবে।

আরও পড়তে পারেনঃ  অন পেইজ এসইও Ranking  করার নিয়ম ২০২১   

16.আপনার মেইন কীওয়ার্ডটি শেষের কাছাকাছি প্রাথমিক কীওয়ার্ড ব্যবহার করুন। পোস্টের শেষের দিকে প্রাথমিক কীওয়ার্ডটি ব্যবহার করুন। দেখুন আপনার কনটেন্টে প্রাথমিকভাবে কীওয়ার্ড ব্যবহার করুন। কীওয়ার্ড স্টাফিংয়ে ব্যস্ত হবেন না। আপনার পোস্টের মধ্যে 2% মতো কীওয়ার্ড ডেনসিটি তৈরি করতে যথেষ্ট শব্দটি ব্যবহার করুন। আপনার কপির মধ্যে 2% কীওয়ার্ড ডেনসিটি তৈরি করতে যথেষ্ট টার্গেট কীওয়ার্ড ব্যবহার করুন।

17. আর্টিকেল এর ধরণ অনুযায়ী রিলেভ্যান্ট আপনার ওয়েবসাইটের অন্য আর্টিকেলের লিঙ্ক যোগ করুন। অন্যান্য ইন্টার লিঙ্ক পৃষ্ঠায় প্রাসঙ্গিক হাইপারলিঙ্ক যোগ করে আপনার সাইটে অন্যান্য প্রকাশিত পোস্ট এবং পৃষ্ঠাগুলির লিঙ্ক যুক্ত করুন। যাতে আপনার ভিজিটর সহজে আপনার আর্টিকেল এর মাধ্যমে লিঙ্ক juice করতে পারে এবং আপনার সাইটে বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়।

18. এইটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এই পয়েন্টটি, অনেক ব্লগার মনে করে থাকে আমার ওয়েবসাইট অন্য ওয়েবসাইট লিঙ্ক কেন দিবো এটা একটা মারাত্মক ভুল এসইও এর জন্য, আপনার ওয়েবসাইট থেকে অন্য হাই অথরিটি ওয়েবসাইটকে লিঙ্ক দিলে আপনার জন্য লাভবান গুগল নিজেই যখন এটা সাজেশন করে তাহলে আপনার দিতে সমস্যা কি।সচারাচর বাংলা ব্লগাররা অন্য ওয়েবসাইটকে লিঙ্ক দিতে ভয় পাই বা দেয় না, মনে করুন আপনার ওয়েবসাইট Da 10 Pa 20 তাহলে আপনি অবশ্য চেষ্টা করবেন আপনার চাইতে হাই Da Pa ওয়েবসাইট কে লিঙ্ক দিতে। Da হলো Domain Authoritie এবং PA হলো Page Authoritie এটা Moz একটা টুলস হ্যা অনেক এসইও এক্সপার্ট বলে থাকেন ওয়েবসাইট Rank করার জন্য Da, Pa অনেক কাজে দেয়।

আরও দেখতে পারেন অনলাইনে ইনকাম ২০২১ | অনলাইনে আয় করার ১২টি সহজ উপায়- Msterblog

19. একটি নতুন পাতা খুলতে আউটবাউন্ড লিঙ্ক সেট করুন। আপনার পৃষ্ঠার আউটবাউন্ড লিঙ্কগুলি পর্যালোচনা করুন এবং পাঠকদের আপনার সাইটে রাখার জন্য একটি নতুন উইন্ডোতে খুলতে সেট করুন, এমনকি যদি তারা অন্য ওয়েবসাইটের লিঙ্কে ক্লিক করে।

20. একটি CTA কল-টু-অ্যাকশন দিয়ে শেষ করুন। কারণ সব ভাল ব্লগ পোস্ট একটি লক্ষ্য মাথায় রেখে লেখা হয়, একটি কল-টু-অ্যাকশন দিয়ে শেষ হয় যা আপনার ভিজিটরকে বলুন যে আপনি তাদের পরবর্তী কী করতে চান।

21. অতিরিক্ত টাইটেল লিখুন। আপনার টাইটেটি যেন ৩-৪ টা মতো লেখুন যেটা আপনার ভালো লাগে সেটাকে ব্যবহার করুন। আপনার নতুন বিকল্পগুলির মধ্যে সেরা শিরোনামটি চয়ন করুন। নিশ্চিত করুন যে আপনার টাইটেলে মেইন কীওয়ার্ড রয়েছে এবং এটি সংক্ষিপ্ত এবং বাধ্যতামূলক। সার্চে পুরোপুরি প্রদর্শিত হওয়ার জন্য আপনার চূড়ান্ত টাইটেলেটি 60 অক্ষরের নিচে থাকা উচিত। যাতে সার্চে আপনার টাইটেল পুরো দেখা যায় আপনার টাইটেল 63 অক্ষরের বেশি হলে…… Dot dot চলে আসবে।

কমেন্ট করে জানতে ভুলবেন না আপনি এইখান থেকে কোনটি আপনার ব্লগে মিস করতেছেন।

আপনার একটা শেয়ারের মাধ্যমে আরেকজন জানতে পারবে।

Leave a Reply